|সর্বশেষ

6/recent/ticker-posts

Header Ads

ব্রয়লার বা Poultry খামার করে টাকা ইনকাম করার গোপন কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হলো। খামার উদ্যোক্তা

ব্রয়লার খামার করে টাকা ইনকাম করার গোপন কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হলো :




ব্রয়লার খামার লাভজনক একটি
ব্যাবসা যদি আপনি সঠিক করে পরিচর্চা করতে পারেন অল্পদিনে বাজারজাত করা যায় বলে এটি সকলের পছন্দের ব্যাবসা। মাত্র ৩০ দিনে ২ কেজি ওজন হয় বলে অত্যন্ত লাভ করা যায়।
একটি মুরগি ২ কেজি ওজন হতে খাবার খায় ২.৫ কেজি যার বাজার মূল্য ১০০ টাকা এবং বাচ্চার মূল্য ৪৫ টাকা ও ঔষধ ৫ টাকা পিস প্রতি হলে মোট খরচ হয় ১৫০ টাকা।
রেডি মুরগীর বাজার দর ১২০ টাকা নিম্নে মূল্য ধরলে হয় ২৪০ টাকা এখানে লাভ হলো ৯০ টাকা যদি ১০০০ মুরগী থাকে গাহলে লাভ হবে ৯০০০০ টাকা ধরে নিলাম ৬০০০০ টাকা হবে।



ব্রয়লার পালনে সঠিক পরিচর্চা : 

এতক্ষণ লাভ নিয়ে আলোচনা করা হলো এখন আসি পরিচর্যা নিয়ে কারন পরিচর্যা ছাড়া সঠিক লাভ হবেনা।
খামার ব্যাবসায় লাভ করতে হলে প্রথমে সঠিক স্থান নির্ধারন করে পাকা দিয়ে মজবুদ ঘর নির্মান করতে হবে উল্লেখ্য  ১০০০ ব্রয়লার মুরগীর জন্য ১০০০ ফিট স্কয়ার ঘর নির্মান করতে হবে।
সবকিছু ঠিকটাক থাকলে ভালো কোম্পানির বাচ্চা কিনে এ গ্রেড এর বাচ্চা তুলে ১ দিন থকে ৩০ দিন পর্যন্ত সঠিক ঔষধ দিয়ে খাবার ও পানির ব্যাবস্থা ঠিক করলে লাভ হবে দ্বিগুন।

বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন কোম্পানির খাদ্য ডিলাররা বিক্রি করে থাকে সব কোম্পানি কিন্তু ভালো খাদ্য বিক্রি করে না দেখাযাবে অধিক টাকা দিয়ে খাদ্য কিনা হলো কিন্তু সে অনুযায়ী ওজন না বড়লে তখনই লস হবে তাই খাদ্যের প্রতি নজর রাখতে হবে কারন মনে রাখবেন খাদ্য বা ফিড হলো ব্রয়লার এর প্রান 
পোল্ট্রি শিল্পের বাজার 
ভালো বা খারাপ যাই হোকনা কেনো লাভ হবে যদি সঠিক পরিচর্যা করে রাখতে পারেন।




১ দিনের বাচ্চা খামারে আসার পর প্রথমে গ্লুকোজ দিবেন ২৪ ঘন্টা তারপর ব্রুডার এর তাপমাত্রা মাপবেন যাতে ৩৫ ডিগ্রি থাকে প্রথম ৫  দিন পরে কম হলে সমস্যা নেই।
সাথে এন্টিবায়োটিক দিয়ে বাচ্চাগুলো সচল করবেন।



খামারের ৩০ দিনের ঔষধের তালিকা পরবর্তিতে দেওয়া হবে নিয়মিত দেখবের আমার পোষ্টগুলো।

খামারে ৪ বেলা স্বচ্ছ পানি দিবেন সাথে ঔষধ দিয়ে। শীতের বেলায় ৪ বেলায় খাদ্য দিবেন গরমের সময় খাদ্য দিবেন ২ বেলা। না হলে দিনের বেলায় মুরগী খেয়ে স্টোক করবে। 
একদিনের ভালো বাচ্চার ওজন হবে ৩৫ থেকে ৩৬ গ্রাম। এটি হলো ভালো বাচ্চা চিনার কৌশল।

সঠিক ওজন বাড়ার গুরুত্বপূর্ণ কৌশল হলো লিটার শুকনা রাখা।  লিটার হলো মুরগীর নীচে যা দেওয়া হয় এটি শুকনা থাকলে মুরগীর রোগবালাই কম হয় ওজন ভালো আসে। ৫  দিন পর পর লিটার সরিয়ে ফেল্লে মুরগীর ওজন ভালো হয়। 

এরকম আরো অনেক কৌশল আছে ওজন বাড়ানো যা পর্যায়ক্রমে আলোচনা করা হবে আমাদের সাথে থাকবেন নিয়মিত পোস্ট পড়বেন তাহলে জানতে পারবেন ধন্যবাদ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ